,

ইংল্যান্ডের সেই বোলার ৯ ম্যাচ নিষিদ্ধ

  স্পোর্টস ডেস্ক ।। ইংল্যান্ডের দ্বিতীয় বিভাগের সমারসেট ক্রিকেট লিগে অদ্ভুত এক কাণ্ড ঘটিয়েছিলেন এক বোলার। গত শনিবার ম্যাচে ইচ্ছাকৃত নো বল করে সেঞ্চুরি বঞ্চিত করেছিলেন প্রতিপক্ষের ব্যাটসম্যানকে।

এই ঘটনায় ওই বোলারকে লিগে নয় ম্যাচের জন্য নিষিদ্ধ করেছে সমারসেট ক্রিকেট লিগ কর্তৃপক্ষ।

 

খেলায় মিনহেড ক্রিকেট ক্লাবের বিপক্ষে খেলা ছিল পার্নেল ক্রিকেট ক্লাবের। সেই ম্যাচের পার্নেল ক্রিকেট ক্লাবের রনি কিলসিং নামের এক বোলারের আচরণ নিয়ে রীতিমতো সমালোচনা শুরু হয়।

বোলারটির এমন আচরণের জন্য মিনহেডের ব্যাটসম্যান জে ডারেল ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরিতে থেকে বঞ্চিত হয়েছেন। মাত্র ২ রানের জন্য শতরান করতে পারেননি মিনহেড ক্রিকেট ক্লাবের জে ডারেল। ৯৮ রানে অপরাজিত থাকেন তিনি।

মিনহেডের জয়ের জন্য দরকার ছিল মাত্র ৫ রান। এরপরই ঘটে যায় ক্রিকেটের ইতিহাসে ন্যক্কারজনক ঘটনা। পার্নেল সিসির বোলার রনি কিলসিং ইচ্ছাকৃতভাবে ‘নো বল’ করেন। যা সোজা বাউন্ডারির বাইরে চলে যায়। মিনহেড ম্যাচটি জিতে গেলেও জে ডারেলের শতরান করা আর হয়নি।

খেলা শেষ হওয়ার পর প্রতিপক্ষ দলের বোলারের এমন আচরণ মেনে নিতে পারেননি মিনহেডের ক্রিকেটাররা। তারা এর প্রতিবাদ জানান। আঙ্গাস মার্শ টুইটারে বলেছেন, আমার ক্রিকেট ক্যারিয়ারের সবচেয়ে খারাপ ঘটনা। ঘটনার কথা জানাজানি হতেই সোশ্যাল মিডিয়ায় সমালোচনা শুরু হয়।

ইংল্যান্ডের টিভি ব্যক্তিত্ব পিয়ার্স মর্গ্যান এবং সাবেক ইংরেজ ক্রিকেটার রব কী। পিয়ার্স মর্গ্যান যেমন বলেছেন, এ রকম ঘটনাও ঘটল!‌ বোলারটির লজ্জা হওয়া উচিত। রব কী তো বোলারটির উপর ক্ষেপে গিয়ে বলেই দিয়েছেন, বিষয়টি আতঙ্কজনক।

যার শতরান হাতছাড়া হয়েছে সেই জে ডারেল টুইটারে লেখেন, ক্রিকেটের লজ্জা। অবশ্য আমাদের সমর্থন করার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ।

এরকম কাজ করার পর বোলারটির মধ্যে কোনও অনুতাপ দেখা যায়নি। তাকে হাসতে দেখা গেছে। যদিও পার্নেল ক্রিকেট ক্লাব গোটা ঘটনাটির জন্য দুঃখপ্রকাশ করেছে। তারা বলেছে, আমাদের এক ক্রিকেটার স্পিরিট নষ্ট করেছে। ক্লাবের নিয়মশৃঙ্খলা সে ভেঙেছে। আমরা বোলারটির নামপ্রকাশ করছি না। তবে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ঘটনার তদন্তে নামে সমারসেট লিগ কর্তৃপক্ষ। তদন্ত শেষে এক বিবৃতিতে তারা জানায়, ৪ আগস্ট মিনহেড দ্বিতীয় একাদশ ও পারনেল ক্রিকেট ক্লাবের মধ্যে ম্যাচের ঘটনাটি এসসিএলের শৃঙ্খলা কমিটি খতিয়ে দেখেছে। ওই ঘটনা এসসিএল ও ক্রিকেটের সুনাম নষ্ট হয়েছে। এমন ঘটনা ক্রিকেটের চেতনাবিরোধী। তাই পারনেল ক্রিকেট ক্লাবের ওই খেলোয়াড়কে টুর্নামেন্টের নয় ম্যাচের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

Share Button


     এ বিভাগের আরো খবর পড়ুন

বিজ্ঞাপন দিন