,

• জয়া আহসান তাঁর জীবনের অসম প্রেমের গল্পের প্রসঙ্গ উঠতেই হেসে ওঠেন। • বললেন, ‘এটা এতটাই অসম, এর চেয়ে আর অসম প্রেম হতে পারে বলে মনে হয় না।’ • প্রথম আলো আলাপনে এসে এই গোপন তথ্যটি দেন জয়া।

জয়ার অসমী বয়সী প্রেমিক

অভিনয়শিল্পী জয়া আহসানের জীবনে এসেছিল একজন অসম বয়সী প্রেমিক। আর এই প্রেমিকের দেখা তিনি পেয়েছেন যখন শিক্ষকতা করতেন। কলেজ পেরোনো জয়া স্নাতকে ভর্তি হওয়ার আগে কিছুদিন একটি ইংরেজি মাধ্যম স্কুলে শিক্ষকতা করেছেন। সেখানে শিক্ষিকা জয়া দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রের কাছ থেকে প্রেমপত্র পেয়েছেন। প্রথম আলো আলাপনে এসে ভালোবাসা দিবসের সন্ধ্যায় এই গোপন তথ্যটি দেন জয়া।

জয়া আহসান এখন আছেন কলকাতায়। গতকাল বৃহস্পতিবার তিনি শুটিংয়ের জন্য সেখানে গিয়েছেন। এর ফাঁকে আগামীকাল শনিবার বিকেলে জিও ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ডসের (পূর্ব) অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন। এবার আসরে ‘বিসর্জন’ ছবির জন্য তিনি সমালোচক এবং জনপ্রিয়—দুই ক্যাটাগরিতেই ‘সেরা অভিনেত্রী’র মনোনয়ন পেয়েছেন।

জয়া আহসান তাঁর জীবনের অসম প্রেমের গল্পের প্রসঙ্গ উঠতেই হেঁসে ওঠেন। বললেন, ‘এটা এতটাই অসম, এর চেয়ে আর অসম প্রেম হতে পারে বলে মনে হয় না। দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রের কাছ থেকে প্রেমপত্র পাব ভাবিনি। ফয়সাল নামের সেই ছাত্রটি খুব দুষ্টু ছিল। প্রেমপত্র দেখেছে পাশে বসা এক ছাত্রী। সে বলে উঠল, “ম্যাম, ম্যাম, দেখেন, কী লিখছে এটা!” আমি দেখলাম, কাগজের একপাশে আমার একটা ছবি আঁকা, আরেক পাশে একটা হার্ট। আর এই হার্টের মাঝখান দিয়ে একটা তীর চলে গেছে। সেখানে লেখা, ফয়সাল লাভস জয়া মিস! এটা আমার সবচেয়ে ছোট প্রেমিকের কাছ থেকে পাওয়া প্রেমপত্র।’

শিক্ষকতা প্রসঙ্গে জয়া বলেন, ‘আমি তখন ইন্টারমিডিয়েট শেষ করেছি। অনার্সে ভর্তির আগে এক বোনের বদলি হিসেবে শিক্ষকতা শুরু করি। শুরুতে ক্ষণস্থায়ী হলেও পরে স্থায়ীভাবে শুরু করি। একসময় ছেড়ে দিই।’

Share Button


     এ বিভাগের আরো খবর পড়ুন

বিজ্ঞাপন দিন