,

রাঙ্গামাটিতে ভয়াবহ পাহাড় ধসে ১১জন নিহত

জনমত রিপোর্ট  ।।  টানা ৩দিনের প্রবল বর্ষণের ফলে রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলার দূর্গম নানিয়ারচর উপজেলার তিনটি স্থানে ভয়াবহ পাহাড় ধসে ও মাটি চাপা পড়ে মা-ছেলেসহ ১১জন নিহত হয়েছে। মঙ্গলবার গভীর রাতে ও ভোরে এ ঘটনা ঘটে।

নানিয়ারচর উপজেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান কোয়ালিটি চাকমা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, রাতে ভারি বর্ষণে নানিয়ারচর ইউনিয়নের ধর্মচরণ কার্বারী পাড়ায় একই পরিবারের স্মৃতি চাকমা (২৩) ও তার ছেলে আয়ুব দেওয়ান সহ ৪জন,বড়পুল পাড়ায় ৪জন ও হাতীমারা পাড়ায় ৩জন নিহত হয়েছে। নিহত অন্যদের নাম-পরিচয় তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি। ধর্মচরণ কার্বারী পাড়ায় নিহত ৪ জনের মধ্যে তিন জনের লাশ এলাকাবাসী উদ্ধার করেছে , বরপুল এলাকায় নিহত ৪ জনের মধ্যে সেখানেও তিন জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এছাড়া পাতাছড়ি এলাকায় পাহাড় ধসে কয়েকজন নিখোঁজ রয়েছে বলে এলাকাবাসী জানায়।

নেটের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ায় আহতের সংখ্যা জানানো সম্ভব হয়নি। এছাড়া কয়েকটি গ্রামের অনেক ঘরবাড়ি ও ফসলি জমি পাহাড়ী ঢলের পানিতে তলিয়ে গেছে। দূর্গমতা ও পাহাড় ধ্বসের কারণে পুলিশ বা সরকারী কোন উদ্ধার কর্মী এখনও পযর্ন্ত অকুস্থলে পৌঁছাতে পারেনি। এদিকে রাঙ্গামাটি শহরের বিভিন্ন স্থানে ব্যাপক পাহাড় ও রাস্তায় ধস সৃষ্টি হয়েছে ।

নানিয়ারচর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আব্দুল্যাহ আল মামুন ও নানিয়ারচর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল লতিফ পাহাড় ধসের বিষয়টি নিশ্চিত করলেও এতে ঠিক কতজন নিহত হয়েছেন তা নিশ্চিত করতে পারেননি। রাঙ্গামাটির জেলা প্রশাসক এ কে এম মামুনুর রশীদ বলেন, স্থানীয় সূত্রে আমিও আটজনের মৃত্যুর খবর পেয়েছি। সড়ক যোগাযোগ স্বাভাবিক না থাকায় ইউএনও এবং ওসি এখনো ওই এলাকাগুলোতে পৌঁছাতে না পারায় সঠিভাবে নিহত , আহতের ও নিখোঁজ সংখ্যা নিশ্চিতভাবে বলা যাচ্ছে না বলে পুলিশ প্রশাসন জানায়। গত বছরের ১৩ জুনের ভায়াবহ পাহাড় ধসে শুধু রাঙ্গামাটি জেলায় ১২০ জনের প্রানহানি ঘটেছিল । এছাড়া পাহাড় ধসের কারণে সাড়ে তিন হাজার লোক আশ্রয় কেন্দ্রে গিয়েছিল । এবারও রাঙ্গামাটিতে সাগরের লগু চাপের কারণে গত তিনদিন ধরে টানা বর্ষণ হচ্ছে। এই রির্পোট লিখা পর্যন্ত পাহাড়ি ঢলের কারণে চট্টগ্রামের রাউজানে সড়কে পানি উঠার কারনে রাঙ্গামাটির সঙ্গে সারা দেশের সড়ক যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গেছে।

 

Share Button


     এ বিভাগের আরো খবর পড়ুন

বিজ্ঞাপন দিন