,

রোহিঙ্গাদের দুর্দশার কথা ন্যাটো ফার্স্টলেডিদের শোনালেন আমিনা এরদোগান

 আন্তর্জাতিক ডেস্ক ।। চলতি সপ্তাহে ব্রাসেলসে ন্যাটো সম্মেলনে ফার্স্টলেডিদের বৈঠকে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের দুর্দশার কথা বর্ণনা করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগানের স্ত্রী আমিনা এরদোগান।

স্বামী এরদোগানের সঙ্গে আমিনা ন্যাটো সম্মেলনে যান। এ সময়ে তিনি মধ্য আফ্রিকার রয়েল জাদুঘর পরিদর্শন করেন। পৃথিবীর অন্যান্য দেশের ফার্সলেডিরাও তখন উপস্থিত ছিলেন।

অন্যান্য ফার্স্টলেডিদের সঙ্গে অকপটে কথা বলার সুযোগ গ্রহণ করেন তিনি এবং ২০১৭ সালে রোহিঙ্গাদের সরাসরি দেখার অভিজ্ঞতার বর্ণনা দেন।

তিনি বলেন, তুরস্ক সব সময় নিপীড়িত মানুষের হয়ে কাজ করে। সেটি হোক সরকারি সংস্থা কিংবা বেসরকারি সংস্থার মাধ্যমে। তিনি জলবায়ু সমস্যা নিয়েও কথা বলেন।

বর্জ্য পুনর্ব্যবহার বাড়ানো ও আবর্জনা কমিয়ে আনার চেষ্টায় নিজেদের মতামত ব্যক্ত করেন তিনি। আমিনা বলেন, আবর্জনা প্রকল্প শূন্যে নামিয়ে আনতে তুরস্ক সফল হয়েছে।

আবর্জনা হ্রাস নিয়ে মতবিনিময়ের সময় ফরাসি ফার্স্টলেডি ব্রিজিটও অকপটে কথা বলেন। তারা এর ঝুঁকি ও নেতিবাচক প্রভাব নিয়ে আলোচনা করেন।

বেলজিয়ামের ব্রাসেলসে ১১ ও ১২ জুলাই ন্যাটো সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। গত ২৪ জুনের নির্বাচনে আগামী পাঁচ বছরের জন্য তুরস্কের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর এই প্রথম তিনি কোনো আন্তর্জাতিক সম্মেলনে যোগ দিয়েছেন।

Share Button


     এ বিভাগের আরো খবর পড়ুন

বিজ্ঞাপন দিন