,

হাইকোর্টের রুলিং পূর্ব লন্ডনে মসজিদ উচ্ছেদের নির্দেশ

জনমত রিপোর্ট : পূর্ব লন্ডনে স্টার্টফোর্ডের অলিম্পিক পার্কের সন্নিকটে অস্থায়ীভাবে স্থাপিত একটি মসজিদ উচ্ছেদের জন্য রুল দিয়েছে হাইকোর্ট। তাবলীগি জামায়াতের পক্ষ থেকে অস্থায়ীভাবে নির্মিত এই মসজিদটিকে ব্রিটেনের মেগা মসজিদ হিসেবে নির্মাণের পরিকল্পনা ছিলো। তাদের পরিকল্পনায় ছিলো, এমনভাবে মসজিদটি নির্মিত হবে যাতে দশ হাজার মুসল্লি কাতারে দাঁড়িয়ে নামাজ পড়তে পারেন। এছাড়া থাকবে লাইব্রেরী, গবেষণাগার থেকে শুরু করে মসজিদভিত্তিক সংস্কৃতি আর সামাজিক কর্মকাণ্ডের নানা আয়োজন। সেই লক্ষ্যে প্ল্যানিং পারমিশনের জন্যও আবেদন করেছিলো তারা। তবে নিউহ্যাম কাউন্সিল ২০১২ সালে তাদের এই আবেদন প্রত্যাখান করলে তার বিরুদ্ধে আদালতে আবেদন জানানো হয়। পরবর্তীতে অস্থায়ীভাবে স্থাপিত মসজিদে প্রায় আড়াই হাজার মুসল্লি নামাজ পড়ছেন। এরইমাঝে গত বছর প্রায় আড়াই লাখ মানুষ মসজিদ নির্মাণের প্রতিবাদে অনলাইন পিটিশনে সাক্ষর করেন। অবশেষে হাইকোর্ট নিউহ্যাম কাউন্সিলের পক্ষেই তাদের রুল দিয়েছে। রুল অনুযায়ী, মসজিদটি উচ্ছেদের পাশাপাশি মসজিদ কর্তৃপক্ষকে মামলার খরচ বাবদ কাউন্সিলকে ২২ হাজার পাউন্ড প্রদানেরও আদেশ দিয়েছেন। হাইকোর্টের রুলের বিরুদ্ধে ১৬ ফেব্র“য়ারির মধ্যে আপিল করার সুযোগ রয়েছে মসজিদ কর্তৃপক্ষের। উল্লেখ্য তাবলীগ জামাতের পক্ষ থেকে ১৯৯৫ সালে ১৭ একর বিশিষ্ট এই জায়গাটি ১ দশমিক ৬ মিলিয়ন পাউন্ডে ক্রয় করা হয়। ইভিনিং স্ট্যান্ডার্ড বলছে, ১৯৯৯ সালে প্রথম এ ধরনের একটি মসজিদ নির্মাণের পরিকল্পনা নেয়া হয়। ২০০১ সালে অস্থায়ীভাবে মসজিদ নির্মাণের স্থানে নামাজ পড়ার অনুমতি দেয়া হয় যার মেয়াদ ২০০৬ সালে ফের বৃদ্ধি করা হয়। আর এখনো সেখানে মুসল্লিরা নামাজ আদায় করছেন। মসজিদ নির্মাণ প্রকল্পের সাথে জড়িতরা বরাবরাই বলে আসছেন, শান্তিপূর্ণভাবে ইসলামের দাওয়াত দিতেই তাদের এই মহান প্রয়াস। মসজিদ কর্তৃপক্ষ লন্ডন ইউকে ট্রাস্টের আঞ্জুমাই-ই- ইসলাহুল মুসলেমিনের মুখপাত্র বলেছেন, এই মসজিদ নির্মাণ নিয়ে যে কোনো আলোচনা করার জন্যে আমরা সবসময় প্রস্তুত। তবে হাইকোর্টের রুলিংয়ের পর তাদের কারো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছে দ্যা গার্ডিয়ান।

Share Button


     এ বিভাগের আরো খবর পড়ুন

বিজ্ঞাপন দিন